ব্রেকিং নিউজ

আকাশপথে রোহিঙ্গাদের উপর হামলা চালাল মায়ানমার আর্মি

ফের রোহিঙ্গাদের উপর সামরিক হামলা চালাল মায়ানমার সেনা। রাখাইনে সামরিক হেলিকপ্টার থেকে রোহিঙ্গাদের উপর হামলা চালানো হয়। যাতে পাঁচ রোহিঙ্গা মৃত্যু হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। ১৩জন গুরুতর আহত হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। বুধবার রাখাইনের একটি বাঁশ ঝাড়ে এই হামলার ঘটনা ঘটে বলে বৃহস্পতিবার জানিয়েছেন স্থানীয় গ্রামবাসী। তবে সেনাবাহিনীর মুখপাত্র এই হামলার বিষয়ে মন্তব্য করতে নারাজ। এমনটাই প্রকাশিত খবরে দাবি করেছে রয়টার্স।

২০১৭ সালে মায়ানমার সেনাবাহিনীর অভিযানের মুখে রাখাইনের ৭ লাখ ৩০ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে আসলে তা সারা বিশ্বের নজরে আসে। রোহিঙ্গা বিদ্রোহীদের পুলিশ ফাঁড়িতে হামলার অভিযোগে এই অভিযান জোরদার করে সে দেশের সেনাবাহিনী। রাষ্ট্রসংঘ রাখাইনে রোহিঙ্গা মুসলিম জনগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে মায়ানমার সেনাবাহিনীর এই অভিযান গণহত্যার অভিপ্সায় পরিচালিত বলে অভিযোগ করেছে। সম্প্রতি রাখাইনে আরাকান আর্মি নামের সশস্ত্র বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে সংঘাতে লিপ্ত হয়েছে সেনাবাহিনী। এই সশস্ত্র গোষ্ঠীর সদস্যরা স্থানীয় বৌদ্ধ জাতিগোষ্ঠী থেকে আসা।

বৃহস্পতিবার হামলার ঘটনাটি ঘটেছে বুথিডাউং শহরে এক রোহিঙ্গা মুসলিম পরিবারের বাড়িতে।

কিন তাউং গ্রামের কমিউনিটি নেতা জাউ কির আহমেদ বলেন, সেনাবাহিনীর বিমান হামলায় পাঁচ ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে একজন আমাদের গ্রামে। বিকাল ৪টার দিকে এই হামলা হয়। গ্রামের লোকজন ভয়ে বাইরে যাচ্ছে না, আতঙ্কিত অবস্থার মধ্যে রয়েছে সবাই।

রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, ২০১৭ সালে রোহিঙ্গাবিরোধী অভিযানের সময় বুথিডাউং এলাকার প্রায় সব গ্রাম পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল। বুধবার যে গ্রামটি হামলার শিকার হয়েছে তা ওই সময় বাদ পড়েছিল। রাখাইনের স্থানীয় এক বাসিন্দা রশিদ আহমেদ টেলিফোনে রয়টার্সকে জানান, তার এক বড় ভাই, কাকা ও আরও একজন উপত্যকায় কাজ করার সময় গুলিবিদ্ধ হয়েছে। তিনি বলেন, তারা সেখানে বাঁশ কাটার সময় একটি হেলিকপ্টার হামলা চালায়। ওই গ্রামের আরও দুই বাসিন্দাও জানিয়েছেন, হেলিকপ্টার থেকে হামলা চালানোর কথা।

মন্তব্য করুন

সাম্প্রতিক প্রকাশনা সমূহ

   সাম্প্রতিক খবর



»