ব্রেকিং নিউজ

করোনাভাইরাস থেকে বাঁচতে মাস্ক পরে গণ বিয়ে

মাস্ক পরে গণ বিয়ে3

চীনে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বজুড়ে। চীনের বাইরে অনেক দেশে এই রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে, সতর্কতা হিসেবে স্বাস্থ্যপরীক্ষার ব্যবস্থাও করেছে অনেক দেশ। কিন্তু এমন পরিস্থিতিও আটকে রাখতে পারেনি বিয়ে করতে ইচ্ছুক ৬ হাজার তরুণ-তরুণীকে। করোনাভাইরাস আতঙ্কের মাঝেই মুখে মাস্ক পরে গণবিয়ে করেছেন তাঁরা!

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মাস্ক পরে গণবিয়ের এই অনুষ্ঠান হয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ায়। শুক্রবার দেশটির গাপিয়ংয়ের ইউনিফিকেশন চার্চে এই গণবিয়ের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বরদের পরনে ছিল স্যুট ও বো টাই, কনেরাও সেজেছিলেন বাহারি গাউনে। কিন্তু সাজে ভিন্নতা থাকলেও বেশির ভাগের মুখেই ছিল মাস্ক। পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে বেশির ভাগ বর পরেছিলেন কালো মাস্ক, আর বেশির ভাগ কনের মুখে ছিল সাদা মাস্ক। বিয়ে করতে এলেও ভাইরাস থেকে নিজেকে বাঁচাতে তো হবে!

বিয়ে করতে এসেও স্বাস্থ্যঝুঁকির কথা ভোলেননি নবদম্পতিরা! মাস্ক পরে বিয়ে করার ব্যাপারে ৩৫ বছর বয়সী তরুণী লি কিওন-সিওক বলেছেন, ‘এই গণবিয়ের অনুষ্ঠানে অংশ নিতে পেরে আমি ভীষণ আনন্দিত। যেহেতু চারদিকে করোনাভাইরাস দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে, তাই সতর্কতার অংশ হিসেবে আমি মাস্ক পরেই বিয়ে করেছি।’

৬ হাজার দম্পতির এই গণবিয়ের অনুষ্ঠান দেখতে গাপিয়ংয়ের চিয়ং শিম পিস ওয়ার্ল্ড সেন্টারে জমায়েত হয়েছিলেন প্রায় ৩০ হাজার মানুষ। দক্ষিণ কোরিয়ার এই চার্চে গণবিয়ের অনুষ্ঠান নতুন কোনো ঘটনা নয়। তবে মাস্ক পরে একসঙ্গে এত বিয়ের কারণে এবার আলোচনায় এসেছে অনুষ্ঠানটি। পরিস্থিতি বিবেচনায় বিশেষ সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিয়েছিল চার্চ কর্তৃপক্ষও। সবার জন্য হ্যান্ড স্যানিটাইজার থেকে শুরু করে তাপমাত্রা পরিমাপ করার ব্যবস্থাও রাখা হয় অনুষ্ঠানে। তবে সবাই যে মাস্ক পরে বিয়ে করেছেন, তা নয়। কেউ কেউ মাস্ক ছাড়াই বিয়ে করেছেন।

১৯৬১ সাল থেকে ইউনিফিকেশন চার্চে গণবিয়ের অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়। তবে করোনাভাইরাসের কারণে এবারের অনুষ্ঠানটা ব্যতিক্রমী রূপ লাভ করেছে। গত ২০ জানুয়ারি দক্ষিণ কোরিয়ায় প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। তবে এখনো পর্যন্ত করোনাভাইরাসের কারণে দেশটিতে কোনো মৃত্যুর ঘটনা ঘটেনি।

মন্তব্য করুন

সর্বশেষ খবর

সাম্প্রতিক প্রকাশনা সমূহ

   সাম্প্রতিক খবর



»