ব্রেকিং নিউজ

নাগা সাধু

nagashado

জন্মদিনে বলিউড অভিনেতা সাইফ আলি খান প্রকাশ করেছিলেন তার ‘লাল কাপ্তান’ ছবির লুক, যেখানে তাকে দেখা গেছে নাগা সাধুর ভূমিকায়। উত্তেজনার পারদ তারপর থেকেই চড়ে ছিল। কারণ পতৌদির নবাব পরিবারের ছেলেকে নাগা সাধুর ভূমিকায় দেখার বিষয়টি অনেকের কাছে ছিল অকল্পনীয়। অনেকে কটাক্ষ করে বলেছেন, ক্যারিয়ারের এ পর্যায়ে এসে সাইফ কি-না নকল করলেন জ্যাক স্প্যারোকে! এ কথা বলার কারণ একটাই- সাইফের এ লুকের সঙ্গে হুবহু মিল ‘পাইরেটস অব দ্য ক্যারিবিয়ান’ ছবির জনি ডেপের। অবশ্য অনেকে এটাও স্বীকার করেছেন যে, ছবিতে সাইফকে তাদের মনে হয়েছে- এটি তার ক্যারিয়ারে বিশেষ একটি ছবি হতে যাচ্ছে, যা বলিউডে তৈরি করতে পারে নতুন এক মাইলফলক।

এ তো গেল ছবির লুক নিয়ে দর্শক প্রতিক্রিয়ার কথা। এরপর সাইফের লুক নিয়ে আরও কত আলোচনা হতে পারে, তার আভাস মিলেছে ছবির ট্রেলার প্রকাশের পর, যেখানে দর্শক নতুন এক সাইফ আলি খানকে আবিস্কার করেছেন। কারও ভালো লেগেছে, কারও লাগেনি। তাই ছবি নিয়েও চলছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। যদিও ছবির লুক নিয়ে সাইফ আলি খানের ভাষ্য- এখন পর্যন্ত ‘লাল কাপ্তান’ ছবির নাগা সাধুর এ চরিত্রটি তার জীবনের সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং চরিত্র। মাথায় প্রায় দুই কিলোগ্রাম ওজনের পরচুলা পরে অভিনয় করতে হয়েছিল এ চরিত্রের জন্য। ঘাড় ঘোরাতে পারতেন না। সঙ্গে ছিল ভয়ানক মেকআপ। সকালে তাড়াতাড়ি উঠে সেটে যেতে হতো। দু’ঘণ্টা লাগত যেতে। রাজস্থানের প্রত্যন্ত গ্রামে শুটিং হতো। ৪০ ডিগ্রির বেশি তাপমাত্রায় ধৈর্য ধরে শুট করেছেন। ছবির জন্য তলোয়ার চালানো এবং ঘোড়সওয়ার হতে শিখেছেন। ঘোড়া চালাতে জানতেন; কিন্তু এ ছবির জন্য আরও দক্ষতার প্রয়োজন ছিল। তাই সবকিছুর জন্য নিজেকে আলাদা করে প্রস্তুত করতে হয়েছে।

সাইফের এ কথায় এটা স্পষ্ট যে, নাগা সাধুর চরিত্রটি তার ভিন্ন ধরনের মনে হয়েছে, যেজন্য গ্ল্যামার চরিত্রের বাইরে এসে ‘লাল কাপ্তান’ ছবিতে অভিনয় করা। তার পরও ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো সাইফকে প্রশ্ন করেছে, শুধু কি ভিন্ন চেহারা আর চরিত্রের জন্যই ‘লাল কাপ্তান’ ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন? এর উত্তরে সাইফ বলেছেন, “শুধু আমার চরিত্র নয়, পিরিয়ড, ফিল্ম আর লুক- তিনটি জিনিসই খুব ইন্টারেস্টিং লেগেছিল বলেই ‘লাল কাপ্তান’ ছবিতে অভিনয় করা। পরিচালক নভদীপ সিং ও প্রযোজক আনন্দ এল রাই যখন প্রথম আমাকে গল্প শুনিয়েছিলেন, তখনই ভালো লেগে গিয়েছিল। একদিকে মোগল সাম্রাজ্য পতনের মুখে, অন্যদিকে ব্রিটিশরা ক্রমশ জাঁকিয়ে বসছে- এ সময়টার গল্প। আমার চরিত্র একজন বাউন্টি হান্টারের, যে পালানো অপরাধীদের ধরে শাস্তি দেয়। বদলে পুরস্কার পায়। কিন্তু তার মানসিকতা বদলে যেতেও সময় লাগে না। পরাধীনতার শিকল ছিঁড়তে মরিয়া হয়ে ওঠে সে। ঐতিহাসিক এ পটভূমিই আমাকে বেশি আকৃষ্ট করেছে। দর্শকেরও তা ভালো লাগবে বলেই আমার ধারণা।’

সাইফ তার ছবিতে আশার জাল বুনতেই পারেন। আসল বিচারক তো দর্শক। আগামীকাল ছবি মুক্তির পরই স্পষ্ট হবে, আসলেই সাইফের ধারণা সঠিক কি-না। তবে ছবি যে ভিন্ন ধরনের হবে, ট্রেলার থেকে কিছুটা আভাস পাওয়া গেছে। পরিচালক নভদীপ সিংয়ের কাজের প্রশংসাও শোনা যায় বলিউডে। এ ছাড়া ‘লাল কাপ্তান’ ছবির অভিনয়শিল্পী মানব ভিজ, সিমন সিং, জয়া হোসাইন, দীপকসহ অনেকে বিভিন্ন কাজের মধ্য দিয়ে অতীতে দর্শকের প্রশংসা কুড়িয়েছেন। তাই ‘লাল কাপ্তান’ ছবিতে তাদের অভিনয় নিয়ে কেউ প্রশ্ন তুলবেন বলে মনে করছেন না বলিউড সিনেমাবোদ্ধারা। এখন দেখার বিষয়, ছবির সাফল্য-ব্যর্থতার হিসাবনিকাশ কী তোলে বলিউড বক্স অফিস।

মন্তব্য করুন

সাম্প্রতিক প্রকাশনা সমূহ

   সাম্প্রতিক খবর



»