ব্রেকিং নিউজ

বিএনপির দু’টি উইকেট চলে গেছে, আরও যাবে: ওবায়দুল কাদের

ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি’র নেতৃত্ব এখন অস্তিতের সংকটে আছে। এই বিএনপির নেতিবাচক রাজনীতির কারণে দেশে মুসলিম লীগের মতো পরিণতি ভোগ করবে। নেতিবাচক রাজনীতি করতে করতে বিএনপি জনসমর্থন হারিয়েছে। আন্দোলনে ব্যর্থ, নির্বাচনে ব্যর্থ বিএনপি এখন আন্দোলনের দল নয়, নির্বাচনের দল নয়। বিএনপি’র অপর নাম বাংলাদেশ নালিশ পার্টি। শুধু নালিশ করে। নয়াপল্টনে এক আবাসিক প্রতিনিধি প্রতিদিন প্রেস ব্রিফিংয়ে গলাবাজি করে। তাদের আর কিছু দেবার নেই। তারা আন্দোলন ডাকে, কিন্তু লোকে সাড়া দেয় না। বিএনপি’র আন্দোলনের মরা গাঙে জোয়ার আর আসে না। এখন তারা দেশ ছেড়ে বিদেশিদের কাছে নালিশ করে।  

রবিবার দুপুরে বরিশাল নগরীর ঐতিহাসিক বঙ্গবন্ধু উদ্যানে মহানগর আওয়মী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন তিনি। বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে ইঙ্গিত করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, টেমস নদীর ওপার থেকে নির্দেশ দেয়, অর্ডার দেয়। আর পুতুল ফখরুল নাচে। টেমস নদীর ওপার থেকে নির্দেশ আসে আর যেমনি নাচায় তেমনি নাচে, পুতুলের কি দোষ। 

তিনি আরও বলেন, বিএনপি’র উইকেট দু’টি চলে গেছে। জেনালের মাহবুবের (অবসরপ্রাপ্ত লে. জেনারেল মাহবুবুর রহমান) উইকেটের পতন হয়েছে, তারপর সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোরশেদ খান-এতবড় উইকেট-এইটাও গেছে। আরও উইকেট যাবে। 

দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি’কে নিয়ে বিচলিত হবেন না। আপনারা ঐক্যবদ্ধ থাকবেন। দলকে ঐক্যবদ্ধ রাখবেন। দলের মধ্যে বিভেদ-কলহ করবেন না। ঘরের মধ্যে ঘর করবেন না। মশারির মধ্যে মশারি ঘাটাবেন না। 

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমাদের সুবিধাবাদী লোকের দরকার নেই। খারাপ লোকের দরকার নেই। খারাপ লোকেরা এসে সব উন্নয়ন-অর্জন উইপোকার মতো খেয়ে ফেলবে। সাচ্চা কর্মী-ত্যাগী কর্মীদের কোনঠাসা করে আওয়ামী লীগ বাঁচবে না। বাংলাদেশকে বাঁচাতে হলে, গণতন্ত্র বাঁচাতে হলে, মুক্তিযুদ্ধকে বাঁচাতে হলে আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হবে। আর আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হলে আওয়ামী লীগের ত্যাগী কর্মীদের বাঁচাতে হবে। আর এজন্য শেখ হাসিনার সরকারকে বারবার ক্ষমতায় দরকার।

ওবায়দুল কাদের বলেন, দুর্নীতির দায়ে খালেদা জিয়া দুই বছর ধরে জেলে। দুই বছরে তারা দুই মিনিটেরও আন্দোলন করতে পারেনি। যেকোন মূল্যে আওয়ামী লীগকে ঐক্যবদ্ধ রাখার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, এখনো চক্রান্ত চলছে, সরকারকে উখাতের পায়তারা চলছে। সুবিধাবাদিরা উইপোকার মতো দল খেয়ে ফেলবে। তাই প্রধানমন্ত্রীর শুদ্ধি অভিযান সফল করার আহ্বান জানান তিনি। চাঁদাবাজ, টেন্ডারবাজ, শীতের অতিথি ও মৌসুমী পাখিদের দলে দরকার নেই। দলে ত্যাগীদের মূল্যায়ন করার কথা বলেন তিনি। 

মহানগর আওয়ামী লীগের বিদায়ী সভাপতি গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলালের সভাপতিত্বে সম্মেলনে উদ্বোধক আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য আমির হোসেন আমু এমপি বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় অসাম্প্রদায়িক নতুন অনুপ্রেরণা পেয়েছে আওয়ামী লীগ। তিনি জীবিত আছেন বলেই বাংলাদেশের মানুষ সুখে-শান্তিতে আছেন। 

সম্মেলনে প্রধান বক্তা আবুল হাসানাত আব্দল্লাহ এমপি উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আবারও আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আনার জন্য নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান। 

সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান বলেন, তাণ্ডব চালিয়ে উন্নয়নের চাকা স্তব্ধ করা যাবে না। 

দলের আইন বিষয়ক সম্পাদক গনপূর্ত মন্ত্রী শ. ম. রেজাউল করিম বলেন, আদালতে প্রভাব খাটিয়ে খুনি খালেদাকে মুক্ত করতে চায় বিএনপি। 

বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম, সদর আসনের এমপি পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অব.) জাহিদ ফারুক শামীম, সিটি মেয়র সাদিক আবদুল্লাহসহ কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দ তাদের বক্তব্যে দলকে ঐক্যবদ্ধ রাখার আহ্বান জানান। 

বিকেলে নগরীর বরিশাল ক্লাব মিলনায়তনে সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে কাউন্সিলরদের কণ্ঠভোটে আগের কমিটির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট একেএম জাহাঙ্গীর ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সিটি মেয়র সাদিক আবদুল্লাহকে যথাক্রমে মহানগর আওয়ামী লীগের নতুন কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়েদুল কাদের এমপি। 

এর আগে, বেলা সোয়া ১১টায় জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন, জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন এবং পায়রা ও বেলুন-ফেস্টুন উড়িয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন উদ্বোধক আমির হোসেন আমু এবং প্রধান অতিথি ওবায়দুল কাদেরসহ অন্যান্য অতিথিরা। উদ্বোধনের পর মঞ্চের সামনে সরকারের গত ১০ বছরের উন্নয়নের অর্জন ডিসপ্লে করে দেখান সাংস্কৃতিক কর্মীরা।

মন্তব্য করুন

সর্বশেষ খবর

সাম্প্রতিক প্রকাশনা সমূহ

   সাম্প্রতিক খবর



»