ব্রেকিং নিউজ

সন্তানের পছন্দ কিন্তু পিতা-মাতার অপছন্দ, এমতাবস্থায় সেই পাত্রীকে বিয়ে করা যাবে?

জবাবে বলা যায় যে, আপনার পছন্দের পাত্রীকে পিতা-মাতা কেন অপছন্দ করছে তা যদি শরীয়ত সম্মত হয় তাহলে পিতা-মাতার আনুগত্য করতে হবে। আর যদি আপনার পছন্দ করা পাত্রী দ্বীনদার হওয়া সত্ত্বেও পিতা-মাতা রাজি না হয়, তাহলে তাদের হক আদায় করবেন। অর্থাৎ আপনার উপর আপনার পিতা-মাতার হক রয়েছে তা আদায় করা অব্যাহত রাখবেন এবং তাদেরকে বুঝাবেন। কেননা আল্লাহ তায়ালা বলেছেন, তোমাদের অন্তরে যা আছে, সে সম্পর্কে তোমাদের রবই অধিক জ্ঞাত।

যদি তোমরা নেককার হও তবে তিনি তাঁর দিকে প্রত্যাবর্তনকারীদের প্রতি অধিক ক্ষমাশীল। (সূরা বনী ইসরাইল আয়াত ২৫)।

সুতরাং অবশ্যই দ্বীনদার পাত্রীকে প্রাধান্য দিবেন সর্বস্থায়। কেননা নবী কারীম (সাঃ) বলেছেন, সুতরাং তুমি দ্বীনদারীকেই প্রাধান্য দেবে নতুবা তুমি ক্ষতিগ্রস্ত হবে। (বুখারী ৫০৯০)। হোক তা আপনার অপছন্দ, কিন্তু মেয়েটা দ্বীনদার, ভালো, অন্য সকল আধুনিক জাহেল নারীদের চাইতে আলাদা, ইসলাম প্রিয়, তাকওয়া অবলম্বনকারী। তাহলে অবশ্যই সেই নারীকে বিয়ে করবেন। তা আপনার পিতা-মাতার পছন্দ হোক অথবা না হোক।

তবে সর্বাবস্থায় তাদেরকে বুঝাবেন। তারপরেও যদি তারা কোনো বদ্ দোয়া করে তবে আল্লাহ তায়ালা যাচাই না করে তা গ্রহণ করেন না। বিধায় চিন্তিত হওয়া যাবে না। (ডঃ আব্দুল্লাহ জাহাঙ্গীর রহিমাহুল্লাহ, জিজ্ঞাসা ও জবাব ১ম খণ্ড, ১০০ পৃষ্ঠা)

—-সংগৃহীত

মন্তব্য করুন

সাম্প্রতিক প্রকাশনা সমূহ

   সাম্প্রতিক খবর



»