ব্রেকিং নিউজ

বিউটি পার্লারে অভিযান এবং জরিমানা ৩৬ টাকা

বর্তমান সময়ে রূপচর্চার প্রতি মানুষের আগ্রহ  এমনিতেই বেশি। এর সাথে যদি যোগ হয় বিশেষ কোন উৎসব তা হলে তো কথাই নেই। এক্ষেত্রে পছন্দের তালিকায় থাকে নামী ব্রান্ডের প্রতিষ্ঠানগুলো। তবে এখন আর নামী ব্রান্ড হলেই নিশ্চিতে থাকার কোন সুযোগ নেই।  কারণ বাংলাদেশের রূপচর্চার অভিজাত দুই প্রতিষ্ঠান ‘পারসোনা’ ও ফারজানা শাকিলস মেকওভার সেলুনকে মোট ৩৬ লাখ টাকা জরিমানা গুণতে হয়েছে। আমদানি তথ্যবিহীন ও মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্য ব্যবহার করায় তাদের বিরুদ্ধে এই ব্যবস্থা। 

বৃহস্পতিবার ধানমণ্ডি এলাকায় পারসোনার দুটি আউটলেটে অভিযান চালিয়ে ছয় লাখ টাকা জরিমানা করে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

এছাড়া গুলশানে পারসোনার আরেকটি আউটলেটকে ১৫ লাখ টাকা জরিমানা করে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। গুলশানে ফারজানা শাকিলস মেকওয়ার সেলুনকেও ১৫ লাখ টাকা জরিমানা করে একই আদালত।

পারসোনাকে জরিমানা করার পর ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার বলেছেন, ‘পারসোনার মতো একটি প্রতিষ্ঠানে মানুষ বিশ্বাস করে যায়, তাদেরকে সেই বিশ্বাসের প্রতি সম্মান দেখাতে হবে।’

রোজার ঈদের আগে বৃহস্পতিবার ধানমন্ডি ২৭ নম্বর সড়ক সংলগ্ন এলাকায় রূপচর্চার প্রতিষ্ঠানগুলোতে অভিযান চালায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। এই অভিযানেই পারসোনা এডামস পার্লার ও পারসোনা বিউটি পার্লারে যায় তারা।

মনজুর শাহরিয়ার বলেন, তারা পারসোনায় বিপুল পরিমাণ প্রসাধন পণ্য পান, যেগুলোতে আমদানিকারকের সিল কিংবা অন্য কোনো তথ্য ছিল না। কোন দেশের তৈরি, তাও লেখা ছিল না।

‘তাদের পণ্যগুলোর কোনো জবাবদিহিতা নেই। এটা হয় অবৈধ অথবা নকল পণ্য। সরকারের ভ্যাট-ট্যাক্স দেওয়ার কোনো তথ্য নেই। এগুলো ভেজাল না কি নকল, তারা সেটা প্রমাণ করতে পারেনি।’

ভোক্তার স্বার্থহানির জন্য পারসোনা এডামস পার্লার ও পারসোনা বিউটি পার্লারকে ছয় লাখ টাকা জরিমানা করা হয় বলে জানান অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক। এবিষয়ে পারসোনা কর্তৃপক্ষের কোনো বক্তব্য তাৎক্ষণিকভাবে পাওয়া যায়নি। তবে শাহরিয়ার বলেন, পারসোনা কর্তৃপক্ষ তাদের ভুল সংশোধনের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। ‘তারা স্বীকার করেছে, তারা ৫০ শতাংশ ঠিক হয়েছে। কিন্তু আরও ৫০ শতাংশ সংশোধনের বাকি।’

ওই এলাকায় আলভিরাস বিউটি পার্লারকেও তিন লাখ টাকা জরিমানা করেছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। অধিদপ্তরের এক কর্মকর্তা বলেন, ‘আলভিরাস বিউটি পারলারের সমস্যাও পারসোনার মতোই। তাদের পণ্যগুলোর একটির গায়েও কোনো আমদানি তথ্য নেই।’

তবে আলভিরাসের ব্যবস্থাপক দাবি করেন, তাদের অধিকাংশ পণ্যের গায়েই আমদানি তথ্য রয়েছে। কিছু কিছু পণ্যের গায়ে আমদানি তথ্য ‘যোগ করা সম্ভব হয়নি’। মনজুর শাহরিয়ারের সার্বিক তত্ত্বাবধায়নে এই অভিযানে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আবদুল জব্বার মন্ডল ও আফরোজা রহমান অংশ নেন।

গুলশান এলাকায় র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালতের কার্যক্রম চলে নির্বাহী হাকিম সারওয়ার আলমের নেতৃত্বে। সেখানে পারসোনা ও ফারজানা শাকিলসের আউটলেটে আমদানি তথ্যবিহীন প্রসাধন পণ্যের পাশাপাশি মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্যও পাওয়া যায় বলে জানান র‌্যাবের নির্বাহী হাকিম।

সারওয়ার আলম বলেন, ‘প্রতিষ্ঠান দুটি থেকে বিপুল পরিমাণ মেয়াদোত্তীর্ণ কসমেটিকস উদ্ধার করা হয়। সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পাওয়ার পর তাদের ১৫ লাখ টাকা করে জরিমানা করে নগদে তা আদায় করা হয়।

জাপানে চারদিনের সফর শেষে সৌদি আরবের উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।  আজ শুক্রবার স্থানীয় সময় বিকেল সাড়ে ৫টার সময় জেদ্দা পৌঁছাবেন বাংলাদেশ সরকারপ্রধান। এদিনই প্রধানমন্ত্রী ইসলামিক সহযোগিতা সংস্থার (ওআইসি) ‘মক্কা সামিট : টুগেদার ফর দি ফিউচার’ শীর্ষক ইসলামী শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দেবেন।

এরপর আগামীকাল ১ ও ২ জুন সৌদি আরব অবস্থান করে পবিত্র উমরা পালন ও মহানবী (সা.) এর পবিত্র রওজা শরিফ জিয়ারত করবেন শেখ হাসিনা।

আগামী ৩ জুন দিবাগত রাত ১টার দিকে সৌদি থেকে ফিনল্যান্ডের হেলসিংকির উদ্দেশে রওনা হবেন প্রধানমন্ত্রী। স্থানীয় সময় দুপুর একটার দিকে হেলসিংকিতে পৌঁছানোর কথা রয়েছে তার। ৪ জুন ফিনল্যান্ডের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন প্রধানমন্ত্রী।

৭ জুন ফিনল্যান্ডের স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টা ৩৫ মিনিটে ফিনল্যান্ডের বিমান ফিনএয়ারযোগে প্রধানমন্ত্রী ঢাকার উদ্দেশে হেলসিংকি বিমানবন্দর ত্যাগ করবেন। একইদিন দেশে ফেরার কথা রয়েছে বাংলাদেশ সরকার প্রধানের।

বিশ্বকাপে অভিষেকের অপেক্ষায় পাকিস্তানি পেসার মোহাম্মদ আমির। কিন্তু ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে আজ বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে এই পেস তারকাকে নাও পেতে পারে পাকিস্তান। পাকিস্তানের গণমাধ্যম বলছে, দলের দক্ষিণ আফ্রিকান কোচ মিকি আর্থার ২৭ বছর বয়সী আমিরকে না খেলানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।  পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেনি। তবে দলীয় অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ বলেছেন, আমির ফিট। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে গত ওয়ানডে সিরিজে দলে থাকলেও জলবসন্তের কারণে কোনো ম্যাচ খেলতে পারেননি আমির (একটি ম্যাচে একাদশে ছিলেন, পাকিস্তান ফিল্ডিংয়ে নামার আগেই ম্যাচটি পরিত্যক্ত হয়)। ওই সিরিজে পাকিস্তানের বোলিং ছিল নখদন্তহীন। প্রতিটি ম্যাচেই ৩০০’র বেশি রান তুলে ইংল্যান্ড। 
দুটি ম্যাচে বড় স্কোর (৩৪০ ও ৩৫৮) গড়েও জিততে পারেনি পাকিস্তান।

এরপরই ওয়াহাব রিয়াজের সঙ্গে পাকিস্তানের বিশ্বকাপের চূড়ান্ত দলে জায়াগা করে নেন আমির। নিজের শেষ ১৪ ওয়ানডেতে মাত্র ৫ উইকেট পেয়েছেন আমির। তবু ইংলিশ কন্ডিশনের কাথা মাথায় রেখে বাঁহাতি এ পেসারকে দলে রেখেছে পাকিস্তান। দুবছর আগে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে এক স্পেলেই ভারতের টপঅর্ডার গুঁড়িয়ে দিয়েছিলেন বাঁহাতি এ পেসার। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে পাকিস্তানের বোলিং বিভাগের নেতৃত্ব দেবেন আরেক বাঁহাতি ওয়াহাব রিয়াজ। প্রস্তুতি ম্যাচে আফগানিস্তানের বিপক্ষে দারুণ বোলিং করেন ওয়াহাব। বিশেষ করে ডেথ ওভারে ওয়াহাবের স্পেল ছিল দেখার মতো। ওয়াহাবের সঙ্গে ডানহাতি হাসান আলীর দিকে তাকিয়ে থাকবে পাকিস্তান। মিডল ওভারে গত দু-তিন বছর ধরে পাকিস্তানের সেরা বোলার হাসান। ২০১৭ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে সর্বাধিক উইকেট নিয়েছিলেন তিনি। 

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ডিফেন্স অথরাইজেশন অ্যাক্ট (২০১৯ এনডিএএ)-এর ৮৮৯ ধারা চ্যালেঞ্জ প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত করতে রায় পেতে যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে আবেদন (মোশন) করেছে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় আইসিটি সল্যুশন সরবরাহকারী চীনা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে। এছাড়াও যুক্তরাষ্ট্র সরকারকে হুয়াওয়ের ওপর রাষ্ট্রীয় নিষেধাজ্ঞা স্থগিত করার আহ্বানও জানিয়েছে কম্পানিটি। হুয়াওয়ের যুক্তি যুক্তরাষ্টের এই নিষেধাজ্ঞা দেশটির সাইবার নিরাপত্তা  দেবে না। গতকাল বুধবার শেনজেনে হুয়াওয়ের কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান প্রতিষ্ঠানটির প্রধান আইন কর্মকর্তা সং লিওপিং।

উল্ল্যেখ, এনডিএএ-তে  হুয়াওয়েকে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের এমন একটি তালিকায় রাখা হয়েছে যেসব প্রতিষ্ঠানের সাথে কোনো আমেরিকান কম্পানি লাইসেন্স ছাড়া বাণিজ্যিক সম্পর্ক স্থাপন করতে পারবে না। এই নিষেধাজ্ঞা আরোপের পর  হুয়াওয়ের ওপর অ্যান্ড্রয়েডড অপারেটিং সিস্টেমের কিছু আপডেট করার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে গুগল। যার ফলে হুয়াওয়ের স্মার্টফোনের নতুন কয়েকটি মডেল থেকে কিছু গুগল অ্যাপ ব্যবহার করা যাবে না। এধরণের ঘটনা বিশ্বের তথ্যপ্রযুক্তিখাতকে ইতোমধ্যেই শঙ্কিত করে তুলেছে। 
 বিষয়টি সম্পর্কে সংবাদ সম্মেলনে সং লিওপিং বলেন, ‘সাইবার নিরাপত্তার অজুহাতে হুয়াওয়েকে নিষিদ্ধ করা হলেও সেটা তাদের নেটওয়ার্ক নিরাপদ রাখতে কোনো ভূমিকাই রাখতে পারবে না। তারা নিরাপত্তার বিষয়ে সবাইকে একটি ভুল ধারণা দিচ্ছে এবং প্রকৃত চ্যালেঞ্জের বিষয়ে আমাদের মনোযোগ নষ্ট করছে।’ 

তিনি আরও বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের রাজনীতিবিদরা একটি প্রাইভেট কম্পানির বিরুদ্ধে তাদের সব শক্তি প্রয়োগ করছে, যা স্বাভাবিক নয়। এমনকি ইতিহাসে কখনও এমন ঘটনা ঘটেনি।’

সং লিওপিং বলেন, ‘হুয়াওয়ে যে তাদের দেশের নিরাপত্তার জন্য হুমকি- এ বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্র সরকার কোনো ধরনের প্রমাণ সরবরাহ করতে পারেনি। বিষয়টা এমন যে কোনো প্রমাণ নেই, কিন্তু তারা অভিযোগ বা সন্দেহ করছে।’ 

আদালতের কাছে আবেদনে হুয়াওয়ের যুক্তি, ‘২০১৯ এনডিএএ-এর ৮৮৯ ধারাটি শুধুমাত্র হুয়াওয়ের জন্যই করা হয়েছে। এই ধারার মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের এজেন্সির প্রতি শুধু হুয়াওয়ের যন্ত্রাংশ ও সেবা ক্রয়ের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়নি বরং তৃতীয় কোনো পক্ষের (যারা হুয়াওয়ের যন্ত্রাংশ ও সেবা ক্রয় করে) সাথে চুক্তি বা অনুদান দেওয়া বা ঋণ দেওয়ার ওপরও নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। এমনকি যুক্তরাষ্ট্র সরকারের সাথে তাদের কোনো সম্পৃক্ততা নাও থাকে তবুও এই ধারা কার্যকর হবে।’  

গত দুই সপ্তাহ আগে হুয়াওয়েকে যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্য বিভাগের কালো তালিকাভুক্ত (এনটিটি লিস্ট) করার বিষয়েও অনুষ্ঠানে কথা বলেন সং লিওপিং। তিনি বলেন, ‘এটা খুবই বিপদজনক উদাহারণ সৃষ্টি করলো যুক্তরাষ্ট্র। আজ তারা টেলিকম খাত ও হুয়াওয়ের সাথে এমন আচরণ করলো। কিন্তু আগামীকাল অন্য কোনো খাত, কম্পানি বা অন্যান্য গ্রাহকদের সাথেও তারা এটা করতে পারে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ন্যায় বিচারের জন্য বিচার প্রক্রিয়াই সর্বশেষ প্রক্রিয়া। যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীন ও সমন্বিত বিচার প্রক্রিয়ার প্রতি হুয়াওয়ের পূর্ণ আস্থা আছে। আমরা আশা করছি, এনডিএএ-এর ভুলগুলো আদালতের মাধ্যমে সংশোধন করা যেতে পারে।’

এই আইনি পদক্ষেপের প্রধান পরামর্শদাতা গেস্নন ডি নেগার বলেন, ‘২০১৯ এনডিএএ-এর ৮৮৯ ধারাটি যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধানে উল্লেখিত আত্মপক্ষ সমর্থনের সাংবিধানিক অধিকার (বিল অব অ্যাটেইনডার), যথাযথ পদ্ধতি (ডিউ প্রসেস) এবং সংবিধান কর্তৃক অনুমোদিত ক্ষমতা (ভেস্টিং ক্ল্যয)  নীতিমালার পরিপন্থী। সুতরাং অভিযোগ প্রমাণ করার মতো যেহেতু কোনো বিষয় নেই তাই বিষয়টি সম্পূর্ণভাবে আইনের ব্যাপার হিসাবে বিবেচিত হচ্ছে।  তাই এই বিষয়ে আদালতের তাত্ক্ষণিক রায়ের যৌক্তিকতা রয়েছে।’

হুয়াওয়ে বিশ্বাস করে, প্রতিষ্ঠানটির ওপর যুক্তরাষ্ট্র সরকারের এই ধরনের দমনপীড়ন নীতি দেশটির নেটওয়ার্ককে আরও বেশি নিরাপদ করতে সহায়তা করবে না। তাই হুয়াওয়ে আশা করে, যুক্তরাষ্ট্র সঠিক পদক্ষেপ গ্রহণ করবে এবং যুক্তরাষ্ট্র সরকারের প্রকৃত লক্ষ্য যদি নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়, তাহলে সাইবার নিরাপত্তা বাড়াতে তারা নিরপেক্ষ ও কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।

হুয়াওয়ের এই আবেদনের (মোশন) ওপর শুনানির জন্য আগামী ১৯ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য্য করেছেন আদালত।

যশোর পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে ৬টি পদে জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আগামী ০৬ জুন পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।

প্রতিষ্ঠানের নাম: পুলিশ সুপারের কার্যালয়, যশোরপদের নাম: সাঁট লিপিকার কাম কম্পিউটার অপারেটর
পদসংখ্যা: ০১ জন

শিক্ষাগত যোগ্যতা: এইচএসসি/সমমান
বেতন: ১১,০০০-২৬,৫৯০ টাকা

পদের নাম: সাঁট মুদ্রাক্ষরিক কাম কম্পিউটার অপারেটর
পদসংখ্যা: ০২ জন

শিক্ষাগত যোগ্যতা: এইচএসসি/সমমান
বেতন: ১০,২০০-২৪,৬৮০ টাকা
 
পদের নাম: কম্পাউন্ডার
পদসংখ্যা: ০১ জন
শিক্ষাগত যোগ্যতা: এসএসসি/ফার্মাসিস্ট ডিপ্লোমা
বেতন: ৯,৭০০-২৩,৪৯০ টাকা

পদের নাম: অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক
পদসংখ্যা: ০১ জন
শিক্ষাগত যোগ্যতা: এইচএসসি/সমমান
বেতন: ৯,৩০০-২২,৪৯০ টাকা

পদের নাম: ক্যাশিয়ার
পদসংখ্যা: ০১ জন
শিক্ষাগত যোগ্যতা: এইচএসসি/সমমান
বেতন: ৯,৩০০-২২,৪৯০ টাকা

পদের নাম: বিক্রয় সহকারী
পদসংখ্যা: ০১ জন
শিক্ষাগত যোগ্যতা: এসএসসি/সমমান
বেতন: ৮,৫০০-২০,৫৭০ টাকা

চাকরির ধরন: অস্থায়ী
প্রার্থীর ধরন: জেলার স্থায়ী বাসিন্দা
বয়স: ০৬ জুন ২০১৯ তারিখে ১৮-৩০ বছর। বিশেষ ক্ষেত্রে ৩২ বছর
 
আবেদনের ঠিকানা: পুলিশ সুপার, পুলিশ সুপারের কার্যালয়, কারবালা রোড, যশোর।

আবেদনের শেষ সময়: ০৬ জুন ২০১৯

নির্বাচন কমিশন সচিবালয় ও এর আওতাধীন মাঠ পর্যায়ের কার্যালয়ে রাজস্ব খাতে ডেটা এন্ট্রি অপারেটর পদে সরাসরি নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। বিজ্ঞপ্তি অনুসারে ৪৬৮ জনকে এই পদে নিয়োগ দেওয়া হবে।

বেতন স্কেল: ৯ হাজার ৩০০-২২ হাজার ৪৯০ টাকা
শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্বীকৃত বোর্ড হতে উচ্চ মাধ্যমিক বা সমমান পাস। কম্পিউটারের প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত হতে হবে। কম্পিউটারে ডেটা টাইপিং-এর গতি বাংলায় ২০ শব্দ ও ইংরেজিতে ২০ শব্দ থাকতে হবে।

বয়স: ১ মে তারিখে প্রার্থীর বয়স ১৮ থেকে ৩০ হতে হবে। তবে কোটার প্রার্থীরা ৩২ বছর পর্যন্ত আবেদনের সুযোগ পাবেন।

আগ্রহী প্রার্থীদের www.ecs.teletalk.com.bd ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অনলাইনে আবেদন করতে হবে।

আবেদনের সময়: আজ ২২ মে থেকে আবেদন শুরু হয়েছে। আবেদন শেষ সময় ১১ জুন, ২০১৯ বিকেল ৫টা পর্যন্ত।

ওদের হাতে বিশ্বকাপ মশাল। ওদের কাছে ১৬ কোটির প্রত্যাশা। ওরাই স্বপ্নের ধারক। ওরা বাংলার টাইগার। ওরা বাংলাদেশের বিশ্বকাপ স্বপ্নসারথি। ওদেরই একজন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে বাংলাদেশের ১৫ খেলোয়াড়কে নিয়ে প্রতিদিন লেখা প্রকাশ করছে রাইজিংবিডি’র ক্রীড়া বিভাগ। আজ পড়ুন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের গল্প, লিখেছেন আমিনুল ইসলাম।

সনাথ জয়সুরিয়া, কেভিন পিটারসেন, শোয়েব মালিক, স্টিভ স্মিথ ও অন্যান্যদের মতো মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ক্রিকেট ক্যারিয়ার শুরু হয়েছিল একজন বোলার হিসেবে। তারপর তিনি নিজেকে ব্যাটসম্যান হিসেবে প্রতিষ্ঠা করেছেন। তবে বল হাতেও কার্যকরী অফ-ব্রেক বোলিং করতে পারেন।

সেঞ্চুরিয়নে তার করা ১০৩ রানের অনবদ্য ইনিংসে ভর করে ২০১৫ বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো কোয়ার্টার ফাইনালে নাম লিখিয়েছিল বাংলাদেশ। ওই ম্যাচ ছাড়া যেসব ম্যাচে তিনি ব্যাট হাতে ভালো করেছিলেন সেখানে অন্য কেউ নায়ক বনে গেছে। তাকে হতে হয়েছে সাইড নায়ক। এবার বিশ্বকাপে তিনি পারবেন কী বাংলাদেশের নায়ক হতে? বড় ম্যাচের তারকা খ্যাত সাইলেন্ট কিলার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে ঘিরে ভক্ত-সমর্থকদের প্রত্যাশাও কম নয়।
 


মাহমুদউল্লাহর জন্ম ময়মনসিংহে। সেখানেই তার ক্রিকেটের হাতেখড়ি হয়। ২০০০ সালে তিনি এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল (এসিসি) অনূর্ধ্ব-১৫ টুর্নামেন্টে সুযোগ পান। এরপর ২০০৪ সালে তিনি ঘরের মাঠে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপেও খেলেন। একই বছর প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে তার অভিষেক হয় বাংলাদেশ ‘এ’ দলের হয়ে। ২০০৫-০৬ মৌসুম থেকে নিয়মিত ক্লাব ও প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট খেলতে শুরু করেন।

১৯ বছর বয়সে বাংলাদেশ ‘এ’ দলের হয়ে তার অভিষেক হয় প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে। জিম্বাবুয়ে ‘এ’ দলের বিপক্ষে তার অভিষেক ম্যাচে ৫৫ ও ৪২ রান করেন। ২০০৭ সালের জুলাইয়ে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তার ওয়ানডে অভিষেক হয়। অভিষেক ম্যাচে বল হাতে তিনি ২ উইকেট নেন। আর ব্যাট হাতে করেন ৩৬ রান। অভিষেক ম্যাচে তার পারফরম্যান্সে সন্তুষ্ট হয়ে বাংলাদেশের কেনিয়া সফরেও তাকে রাখা হয় এবং টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দলেও সুযোগ দেওয়া হয়। ২০০৮ সালে তিনি দল থেকে বাদ পড়লেও ঘরোয়া ক্রিকেটে নিজেকে প্রমাণ করে আবার জাতীয় দলে ডাক পান।

২০০৯ সালের জুলাইতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের টেস্ট অভিষেক হয়। সাদা পোশাকে অবশ্য দারুণ সূচনা করেন তিনি। ব্যাট হাতে ব্যর্থ হলেও বল হাতে দুই ইনিংসে নেন ৮ উইকেট। দ্বিতীয় ইনিংসে বল হাতে ৫ উইকেট নিয়ে বিদেশের মাটিতে বাংলাদেশের প্রথম জয়ে অবদান রাখেন। ৮ উইকেট শিকার এখনো তার ক্যারিয়ার সেরা বোলিং ফিগার।
 


ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের পর লংগার ভার্সনে ব্যাট হাতে ছন্দ খুঁজে পান তিনি। টানা পাঁচ ম্যাচে পঞ্চাশের অধিক রান করেন। সেবার তিনি নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ৮ নম্বরে ব্যাট করতে নেমে প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরির দেখা পান।

ওয়ানডেতে ৭ নম্বরে ব্যাটিং করে তিনি অনেক রান করেছেন। ২০১১ বিশ্বকাপে শফিউল ইসলামকে নিয়ে দুর্দান্ত এক জুটি গড়ে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে জয় ছিনিয়ে এনেছিলেন। বিশ্বকাপের পর তাকে সহ-অধিনায়ক করা হয়েছিল।

এরপর ২০১৪ সালটি তার ভালো যায়নি। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও হাসেনি তার ব্যাট। তবে ২০১৫ সালে তিনি নিজেকে ফিরে পান। সে কারণে বিশ্বকাপ স্কোয়াডে জায়গা পান। ২০১৫ বিশ্বকাপে তিনি ছিলেন বাংলাদেশের সেরা ব্যাটসম্যান। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সেঞ্চুরি (১০৩) হাঁকিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে তোলেন বাংলাদেশকে। এরপর নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে করেছিলেন ১২৮ রান। প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে বিশ্বকাপে ব্যাক টু ব্যাক সেঞ্চুরি করেন তিনি। বিশ্বকাপের সাত ইনিংসে ৩৬৫ রান করেছিলেন তিনি।

এবার বিশ্বকাপে মাহমুদউল্লাহ আরো অভিজ্ঞ। আরো পরিণত। বড় মঞ্চের তারকা এবার বিশ্বকাপ কিভাবে রাঙান দেখার বিষয়। তবে তার নায়ক হওয়ার সুযোগ রয়েছে এই বিশ্বকাপে।

বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের আওতাধীন পল্লী বিদ্যুৎ সমিতিতে অস্থায়ী ভিত্তিতে নারীদের জন্য সংরক্ষিত পদে লোক নেওয়া হবে। এতে ৪৭৫ নারী বিলিং সহকারী নিয়োগ দেওয়া হবে।

বেতন: দৈনিক ৬০০ টাকা।
যোগ্যতা: উচ্চমাধ্যমিক পাস। মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকে কমপক্ষে জিপিএ-২.৫০ থাকতে হবে। কম্পিউটারে দক্ষতাসহ বাংলায় ২০ ও ইংরেজিতে ৩০ শব্দ টাইপের গতিসম্পন্ন হতে হবে।

বয়স: নারী প্রার্থীর বয়স ২০১৯ সালের ৩০ এপ্রিল অনূর্ধ্ব-৩০ বছর হতে হবে।

আবেদনের শেষ তারিখ: আবেদনপত্র ২৭ মের মধ্যে ডাকযোগে অথবা কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে পাঠাতে হবে। সরাসরি কোনো আবেদনপত্র গ্রহণ করা হবে না।

আবেদনের ফরম (www.reb.gov.bd) ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে। তা ছাড়া পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির অফিস থেকেও সংগ্রহ করা যাবে।

ধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উন্নত এশিয়া গড়ে তোলার লক্ষে আজ পাঁচটি ধারণা পেশ করে বলেছেন, বাংলাদেশ সংলাপের মাধ্যমে রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান করতে চায়। যা বিশৃঙ্খল পরিস্থিতিকে শান্তিপূর্ণভাবে মোকাবেলার ক্ষেত্রে বিশ্ববাসীর জন্য একটি উদাহারণ হতে পারে।

প্রধানমন্ত্রী আজ স্থানীয় একটি হোটেলে অনুষ্ঠিত নিক্কেই সম্মেলনে যোগদান করে তাঁর মূল প্রবন্ধে একথা বলেন। নিক্কেই সম্মেলনের শিরোনাম হচ্ছে ‘এশিয়ার ভবিষ্যত’।

সম্মেলনের এবারের প্রতিপাদ্য ‘বিশৃঙ্খলা দূর করে একটি নতুন বিশ্ব ব্যবস্থা চাই।’

মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ড. মাহাথীর মোহাম্মদ, কম্বোডিয়ার প্রধানমন্ত্রী হুন সেন এবং ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট রডরিগো দুতার্তে সম্মেলনে যোগদান করেন।

এশিয়ার নেতৃবৃন্দের সামনে একটি সমৃদ্ধ এশিয়া গড়ে তোলার জন্য পাঁচটি ধারণা উপস্থাপনকালে প্রধানমন্ত্রী বলেন, একে বাস্তবে রূপদান করতে সরকার হিসেবে আমরা আমাদের ভূমিকা পালন করেছি এবং এ সম্পর্কে আপনাদের অভিমত ব্যক্ত করার জন্য এখানে উপস্থাপন করা হচ্ছে।

প্রথম ধারণায় তিনি বলেন, বর্তমান বিশ্ব বিভিন্ন ধরনের চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন এবং সংঘাতে পরিপূর্ণ।

তাই, আমাদের বৃহত উদারতায় বিশ্বকে শক্তিশালী করার অঙ্গীকার করা প্রয়োজন, বিশ্বব্যাপী চ্যালেঞ্জগুলো যৌথভাবে মোকাবেলা করা, স্বচ্ছতা ও ন্যায় বিচার সুরক্ষা করা এবং উদ্ভাবনী ধারনা এবং পদক্ষেপের ব্যবহার করে সহযোগিতার নতুন উদ্দীপনা জোরদার করা।

প্রধানমন্ত্রী তার দ্বিতীয় ধারনায় অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য অংশীদারিত্বের ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেছেন, ‘দলগত কর্মকান্ডকে অতিক্রম করে অর্থনীতিকে উদ্ভাবনী চর্চার মধ্যদিয়ে যেতে হবে। পারস্পরিক বিশ্বাস এবং সম্মানের উপর ভিত্তি করে অংশীদারিত্ব গড়ে তুলতে হবে, জনগণের লাভের জন্য এবং সাধারণ উন্নয়ন ও সমৃদ্ধি নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে সকলের জন্য সমান সুবিধাজনক কৌশল গ্রহণ করতে হবে।’

তৃতীয় ধারণায় তিনি আরো বলেন, এশীয় দেশগুলোকে খোলা মন নিয়ে পরস্পরের সাহায্যে এগিয়ে আসতে হবে, অন্তর্ভুক্তিমূলকভাবে, সমতা, অংশীদারিত্ব এবং যৌথ অনুদানের ভিত্তিতে।

চতুর্থ ধারণায় শেখ হাসিনা বলেন, আন্তর্জাতিক ধারাবাহিকতা এবং আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে সবার জন্য সুবিধাজনক পরিস্থিতি সৃষ্টির মাধ্যমে টেকসই এবং সমতাভিত্তিক উন্নয়নের ওপর এশিয়ার ভবিষ্যত নির্ভর করছে।

তিনি বলেন, আমাদের সংঘবদ্ধভাবে উন্নয়ন চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবেলা করতে হবে। সে জন্য আমরা একটি গোত্রবদ্ধ হয়ে দলগত ভাবে বিশ্ব শান্তি এবং স্থিতিশীলতা বৃদ্ধির জন্য কাজ করতে পারি, যার লক্ষ্য হবে একটি বহুমুখী বিশ্ব ব্যবস্থা গড়ে তোলা এবং উন্নয়নশীল দেশগুলোর যথাযথ অধিকার এবং স্বার্থকে সংরক্ষণ করা।

যোগাযোগ সম্পসারণের প্রতি গুরুত্বারোপ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এটা যোগাযোগ ব্যবস্থারই একটি গতিশীলতা যেটি বিশ্বজুড়ে শান্তি এবং সমৃদ্ধির ভিত রচনা করেছে। অবকাঠামো, মুক্ত বাণিজ্য এবং সহজ বিনিয়োগ এশিয়ার উন্নয়নের ভিত্তি ।

পুলিশ সুপার আবদুল মান্নান মিয়া। সদর উপজেলা, গাইবান্ধা, ২৮ মে।

পুলিশের চাকরি পেতে কোনো টাকা-পয়সা লাগে না। জমিজমা বিক্রি করতে হবে না। মাত্র ১০৩ টাকায় পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকরি পাওয়া যাবে। এর মধ্যে ১০০ টাকার ব্যাংক ড্রাফট এবং ৩ টাকার ফরম কিনলেই হবে।

আজ মঙ্গলবার বিকেল সোয়া পাঁচটায় গাইবান্ধা সদর উপজেলার দারিয়াপুর গরুর হাট চত্বরে অনুষ্ঠিত আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণবিষয়ক এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় গাইবান্ধার পুলিশ সুপার আবদুল মান্নান মিয়া এসব কথা বলেন। আসন্ন ঈদুল ফিতর উপলক্ষে এই সভার আয়োজন করা হয়।

আবদুল মান্নান বলেন, আগামী ২৯ জুন গাইবান্ধা পুলিশ লাইনস মাঠে কনস্টেবল পদে লোক নিয়োগ করা হবে। নিয়োগের সময় অনেকে প্রতারণার শিকার হন। তাঁরা পুলিশের চাকরির জন্য জমিজমা ও গরু-বাছুর বিক্রি করেন। চাকরির জন্য দালাল ধরেন। চাকরির জন্য দালালের বিষয়ে সাবধান করেন সুপার।

পুলিশ সুপার বলেন, ‘চাকরি দেওয়ার কথা বলে দালালেরা আপনাদের জোর করলে তাদের পরিণতি হবে ডাকাত ও মাদক ব্যবসায়ীদের মতো। আপনারা এসব বিষয়ে পুলিশকে খবর দেবেন।’

এ সময় সুপার মান্নান সবার প্রতি অনুরোধ জানিয়ে বলেন, ‘১০৩ টাকায় পুলিশে লোক নিয়োগের এই বার্তা আপনারা জেলার অন্যান্য এলাকায় পৌঁছে দেবেন। সরকারি বিধিবিধান অনুযায়ী লাইনে দাঁড়াবেন। শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর যোগ্যতা অনুযায়ী পুলিশে চাকরি পাওয়া যাবে।’

আলোচনা সভাটি সঞ্চালনা করেন গাইবান্ধা সদর থানার ওসি খান মো. শাহরিয়ার। এর আগে পুলিশ সুপার নগদ অর্থ উত্তোলন ও পরিবহনে মানি এসকর্ট সেবার জন্য পুলিশের ফোন নম্বরসংবলিত একটি ফেস্টুন স্থানীয় ব্যবসায়ীদের হাতে তুলে দেন।

পুলিশ সুপার বলেন, ‘কয়েক দিন পরই ঈদ। ঈদ সামনে রেখে চুরি ছিনতাই বেড়ে যায়। নকল টাকার কারবারিরা তৎপর হয়ে ওঠে। তাদের কাছ থেকে আপনারা সাবধান থাকবেন। আপনাদের কোনো ভয় নেই। পুলিশ আপনাদের পাশে আছে, থাকবে। প্রয়োজনে ব্যবসায়ীদের টাকা-পয়সা বহনে পুলিশ নিরাপত্তা দেবে। পাঁচ হাজার টাকা বহন করতেই আপনারা প্রয়োজনে পুলিশকে ফোন করতে পারেন।’

উল্লেখ্য, পুলিশ কনস্টেবল পদে গাইবান্ধায় জেলায় ১৪৪ জন লোক নিয়োগ করা হবে।



»