ব্রেকিং নিউজ

ভারতে নির্বাচনী প্রচারণার জন্য অভিনেতা ফেরদৌসের ভিসা বাতিল!

ভারতীয় সরকার বাংলাদেশি অভিনেতা ফেরদৌস আহমেদের ভিসা প্রত্যাহার করেছে এবং তাকে পশ্চিমবঙ্গে লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের জন্য নির্বাচনী প্রচারনা পরিচালনার জন্য বাংলাদেশ ফেরত পাঠাতে বলেছে।


ভিসার শর্ত লঙ্ঘনের জন্য কালো তালিকাভুক্ত করা হবে এবং ফেরদৌসকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠানো হবে বলে একটি বার্তা প্রকাশ করেছে এনডিটিভি।

তৃণমূলের রোডশোতে ফেরদৌস আহমদের উপস্থিতির পর বিতর্ক সৃষ্টি হওয়ার পর ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ও ইমিগ্রেশন ব্যুরো থেকে একটি প্রতিবেদন চেয়েছিল। উক্ত প্রতিবেদন বিচার বিশ্লেষণ করে ফেরদৌসের ভিসা বাতিল করা হয় এবং তাকে দেশ ত্যাগ করার নির্দেশ দেওয়া হয় ।
নির্বাচনী ওই প্রচারে ফেরদৌসের সঙ্গে ছিলেন ভারতীয় বাংলা সিনেমার দুই তারকা অঙ্কুশ হাজরা ও পায়েল।

ফেরদৌসের অংশগ্রহণের পর তীব্র প্রতিবাদ করে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেছেন, ‘তৃণমূল তো বিদেশি তারকা এনে নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গ করেছে। এ ধরনের ঘটনা এর আগে দেখিনি। কাল হয়তো ইমরান খানকে প্রচারে ডাকবে তৃণমূল।’ তিনি আরও প্রশ্ন তুলেন, ‘এভাবে ভারতের একটি রাজনৈতিক দলের নির্বাচনী প্রচারে বিদেশি তারকা আসতে পারেন? তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আইন মানেন না। ভোট কম পড়লে রোহিঙ্গাদের ডেকে আনবেন। কাল হয়তো ইমরান খানকে তৃণমূলের প্রচারে ডাকবেন। আমরা এই ঘটনার নিন্দা জানাই।’

তবে এর পাল্টা জবাব দিয়েছিলেন তৃণমূলের নেতা মদন মিত্র। তিনি বলেছিলেন, ‘বাংলাদেশের সঙ্গে আমাদের অকৃত্রিম বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক। তাই এটা বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের কারণে হয়েছে। এর জন্য নির্বাচন আচরণবিধি লঙ্ঘনের কোনো প্রশ্ন নেই।’

সূত্র — এনডিটিভি



»